‘অশুভ লোক’ সব্যসাচীকে ফেরাবে না তৃণমূল, ‘বিশ্বাস’ করেন সুজিত


ফাইল ছবি

কলকাতা: মুকুলের পর কি রাজীব-সব্যসাচী? তৃণমূলের প্রাক্তন সেকেন্ড ইন কমান্ডের দলে প্রত্যাবর্তনের পর থেকে এই প্রশ্নটাই ঘুরপাক খাচ্ছে রাজনৈতিক মহলে। যদিও সব্যসাচী দত্তের ফিরে আসার রাস্তাটা যে খুব একটা মসৃণ হবে না, শনিবার সেটা কার্যত স্পষ্ট করে দিয়েছেন সুজিত বসু। সব্যসাচীর দলে ফেরা নিয়ে এ দিন ঘোর আপত্তির কথা জানিয়েছেন বিধাননগরের বিধায়ক। ভোটের কয়েক মাস আগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে নাম লেখানো এই নেতাকে ‘অশুভ লোক’ বলে কটাক্ষ করেছেন তিনি।

একটা সময় এক দলে থাকলেও সুজিত বসু ও সব্যসাচী দত্তের ব্যক্তিগত সমীকরণ একেবারেই মধুর ছিল না। দুই নেতার ‘বিরোধিতা’ ছিল সুবিদিত। এমনটাও শোনা যায় যে, বিধানসভা ভোটের আগে সুজিতও নাকি বিজেপিতে শামিল হতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সব্যসাচী দত্তের তীব্র আপত্তির কারণেই সেটা সম্ভব হয়নি। সেই সুজিত বসুকে পুনরায় টিকিট দিয়েছিলেন মমতা। অন্যদিকে বিজেপির টিকিটে বিধাননগরের প্রার্থী হন সব্যসাচী। প্রার্থী হওয়া পর জয়ের বিষয়ে তিনি এতটাই আত্মবিশ্বাসী ছিলেন যে একে ‘ওয়াক ওভার গেম’ বলতেও পিছ পা হননি। কিন্তু ভোটে জিততে পারেননি বিধাননগরের প্রাক্তন মেয়র। বিধানসভা ভোটে প্রায় ২০ হাজার ভোটের ব্যবধানে জয়লাভ করে ফের একবার রাজ্য মন্ত্রিসভায় জায়গা পান সুজিত। আর এখন সব্যসাচীকে দলে ফেরানো নিয়ে ফিসফাস শুরু হতেই ফোঁস করেছেন সুজিত।

আরও পড়ুন: ‘বিজেপির ঘরের খবর মমতার কাছে ফাঁস করবেন মুকুল!’, প্রথম থেকেই সন্দেহ ছিল তথাগত’র

সব্যসাচীর দলে ফেরার জল্পনা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে শনিবার সুজিতকে বলতে শোনা যায়, “অশুভ লোকের হাত থেকে সাধারণ মানুষ বিধাননগরকে বাঁচিয়ে দিয়েছে।” পাশাপাশি সব্যসাচীকে দলে ফেরানোর বিষয়ে যদি তাঁর মত চাওয়া হয় তবে তিনি যে নিজের আপত্তির কথা দলকে জানাবেন সেটাও স্পষ্ট করে দিয়েছেন দমকলমন্ত্রী। একই সঙ্গে শুক্রবারের সাংবাদিক সম্মেলনের কথা মনে করিয়ে তিনি বলেন, “দিদি তো কালকে বলেই দিয়েছে যারা দলের ক্ষতি করেছে তাঁদের নেওয়া হবে না। আমার দলের উপর ভরসা আছে, বিশ্বাস আছে।”

আরও পড়ুন: রণকৌশল নিয়ে আলোচনা! তৃণমূলে ফিরেই অভিষেকের সঙ্গে বৈঠকে মুকুল



Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *