ছোট এলাকাতেই পাখির চোখ, জয় পেতে মরিয়া সায়নী


প্রচারে সায়নী, নিজস্ব চিত্র

পশ্চিম বর্ধমান: রঙের উৎসবে দেখা যায়নি তাঁকে। তবে, চতুর্থ দফা নির্বাচনের আগে রবিবাসরীয় নির্বাচনে বেরলেন আসানসোল দক্ষিণের তৃণমূল (TMC) প্রার্থী সায়নী ঘোষ (Sayoni Ghosh)। এতদিন পায়ে হেঁটেই প্রচার সারছিলেন তিনি। তবে রবিবার থেকে টোটোয় চ়ড়ে প্রচার শুরু করলেন তৃণমূল প্রার্থী। বার্নপুরের রহমতপুরে প্রচারে বেরিয়ে গেরুয়া শিবিরকে তোপ দাগলেন সায়নী।

রবিরার প্রচারে বেরিয়ে তিনি বলেন, ‘বিধায়ক হলেই এলাকায় পানীয় জলের সমস্যা দূর করব। সব কাজ একশো শতাংশ সম্পূর্ণ করা যায় এমন তো হয়না, বাকি কাজ ধীরে ধীরে করতে হবে। করব।’ অন্যদিকে, সায়নীর অন্যতম প্রতিপক্ষ বিজেপি প্রার্থী (BJP) অগ্নিমিত্রা পল জানিয়েছেন, তিনি বিধায়ক হলে আসানসোলে একটি মেডিক্যাল কলেজ ও ল’কলেজ তৈরি করে দেওয়া হবে। এ প্রসঙ্গে সায়নী (Sayoni ghosh) বলেন, ‘উনি তো ভূমিকন্যা। ওঁর তো আগে থেকেই উচিত ছিল এই কাজ গুলো করা। ভোট এসে গিয়েছে বলেই বিজেপি যা পারছে তাই বলছে।’

শুধু তাই নয়, দোলের দিন প্রচারে দেখা যায়নি সায়নিকে। কিন্তু দেখা গিয়েছিল বিজেপি প্রার্থী অগ্নিমিত্রাকে। সে প্রসঙ্গে, তৃণমূল প্রার্থী বলেন, ‘দোলের দিন আসিনি, তবে নববর্ষে আসব। পয়লা বৈশাখে সকলের সঙ্গে দেখা করব।’

এ দিনে সায়নীর প্রচারে বেশ কিছু অভিনবত্ব দেখা গেল। পায়ে হাঁটার বদলে টোটোয় চড়ে রোড শো সারলেন তিনি। তারপর বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচার করলেন। শুধু তাই নয়, ছোট ছোট এলাকায় জনসংযোগ বাড়াচ্ছেন সায়নী। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশের দাবি, ছোট এলাকায় পাখির চোখ করে আসলে নিজের জমিই শক্ত করতে চাইছেন তারকা। উপেক্ষা করছেন ভরা চৈত্রের লু-ও।

শুধু তারকা হওয়া ছাড়াও, সায়নীর এই ‘সদাকর্মঠ’ মনোভাব ও আচরণটি যে তৃণমূলের (TMC) ভিত আরও পোক্ত করবে তা অস্বীকার করছেন না রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। শুধু তাই নয়, নিজের প্রত্যেকটি প্রচার সোশ্যাল মিডিয়ায় মিউজিক ভিডিয়ো আকারে শেয়ার করেছেন তারকা। সে প্রসঙ্গে সায়নী (sayoni Ghosh) বলেন, ‘বিজেপি নেতাদের গাড়িতেও তো ইভিএম দেখা গিয়েছে। সেখানে আমি তো কেবল প্রচারের ভিডিয়োতে গান যোগ করেছি। চাই, এইভাবে প্রচার আরও ছড়িয়ে পড়ুক। আমার স্থির বিশ্বাস, এই ভিডিয়োর প্রভাব ইভিএমেও পড়বে।’

আরও পড়ুন: কৌশানি ছোট মেয়ের মতো, ওর যা মন চায় বলুক: মুকুল

 



Source hyperlink

Spread the love

Leave a Reply

%d bloggers like this: