বঙ্গে আত্মসমীক্ষা করতে চাই! বিজেপি

দেবা দাস, কৃষ্ণনগর: একুশের বিধানসভা নির্বাচন শেষে তৃতীয়বারের জন্য ক্ষমতায় এসেছেন তৃণমূল সুপ্রিম। ঠিক এর পরেই মুকুল রায় , সোনালী সহ একাধিক নেতা নেত্রী যারা একসময় তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিল তারা আজ তৃনমূলে ফিরতে চেয়ে নেত্রীর কাছে আর্জি জানায়। ঠিক এখান থেকে শিক্ষা নিতে চাই বঙ্গ বিজেপি। ভবিষ্যতে অন্য দল থেকে আসা কোনও নেতা বা নেত্রীকে দলে নেওয়ার ক্ষেত্রে অতীতের ঘটনার কষ্টিপাথরে ফেলেই যাচাই করে নিতে চাইবে গেরুয়া শিবির।

আরো পড়ুন বিধ্বস্ত ব্রাজিলেই হচ্ছে কোপা আমেরিকা! জানিয়ে দিল সেদেশের সুপ্রিম কোর্ট

সেক্ষেত্রে কোনও তাড়াহুড়ো না করে বরং অনেক ধীর অথচ সতর্ক পদক্ষেপেই এগনো হবে। ইঙ্গিত মিলল রাজ্য বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্যর কথায়। যেখানে নিজেদের ‘আত্মসমীক্ষা’র দিকটিই তুলে ধরেছেন তিনি। শমীকের কথায়, ‘ভবিষ্যতে অন্য দল থেকে কাউকে অন্তর্ভুক্তির ক্ষেত্রে আমাদের আত্মসমীক্ষার প্রয়োজন আছে।’

আরো পড়ুন ‘ঘনিষ্ঠতা থাকবে, ফারাক মতাদর্শে’, ঘরওয়াপসি ‘চাণক্যের’, অভিমানী ‘মুকুল ঘনিষ্ঠ’ খগেন

শুক্রবারই বিজেপি ছেড়ে ফের পুরনো দল তৃণমূলে ফিরে গেছেন বিজেপি–র সর্বভারতীয় সহ সভাপতি ও কৃষ্ণনগর উত্তর কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক মুকুল রায়। এদিন তাঁর সঙ্গে যোগ দিয়েছেন তাঁর পুত্র ও বীজপুর থেকে পরাজিত বিজেপি প্রার্থী শুভ্রাংশু রায়। দু’জনেই তৃণমূল ভবনে গিয়ে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জি ও দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জির উপস্থিতিতে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। ছিলেন দলের অন্যান্য প্রবীণ নেতারা।

আরো পড়ুন মুকুলের মত সহজ হবে না বাকিদের ‘ঘরে ফেরা’, তৃণমূলে ফিরতে হলে ডিঙোতে হবে এই পাহাড়

Spread the love

Leave a Reply

%d bloggers like this: