বিবাহবর্হিভূত সম্পর্কের বিপক্ষে, মায়ের হাতেই খুন ছেলে

দেবা দাস, কৃষ্ণনগর: এ যেন এক মর্মান্তিক ঘটনা। ছেলের নাম দিব্যেন্দু ঘোষ।তার অভিযোগ বাবা মারা যাওয়ার পর থেকেই বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কে জড়ান মা। এই অভিযোগে কাল হয়ে দাঁড়ালো তার জীবনে।তার জেরেই মৃত্যু হল ২৩ বছরের তরতাজা যুবকের। অন্তত এমনটাই অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের। রবিবার সকালে কান্দি থানার রুদ্রবাটি এলাকায় নিজের ঘর থেকে দীনবন্ধু ঘোষের দেহ উদ্ধার হয়। ছেলেকে খুনের অভিযোগ মা ভানুমতী ঘোষকে আটক করেছে কান্দি থানার পুলিশ। চলছে জিজ্ঞাসাবাদ।

স্থানীয় সূত্রে খবর,ভানুমতীর স্বামী সন্দীপ ঘোষের মৃত্যু হয় বছর দুয়েক আগে। তার পর থেকেই তিনি বিবাহবর্হিভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন বলে।একাধিক বাড়িতে পরিচারিকার কাজ করতেন তিনি। আর সেখানেই তৈরি হয়েছিল বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক।এ নিয়ে পাড়ার বাসিন্দারা প্রায়শই নিন্দা করতেন। ছেলের কানেও খবর পৌঁছতে দেরি হয়নি। তার পর থেকে মায়ের সঙ্গে প্রায়শই অশান্তি হত ছেলের। এ সম্পর্ক নিয়ে বারবার মাকে সতর্ক করেছিলেন দীনবন্ধু। কিন্তু তাতে কোনও কাজ হয়নি।

রবিবার সকালে নিজের ঘরে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় ছেলেকে পড়ে থাকতে দেখেন ভানুমতী। তথনই চিৎকার করে পড়শিদের ডাকেন তিনি। দেহ উদ্ধার করে কান্দি মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে দীনবন্ধুকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা।

প্রসঙ্গত, রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন দীনবন্ধু বিবাহিত হলেও বউ বাপের বাড়িতেই থাকে। রুদ্রবাটির বাড়িতে মা-ছেলে থাকত। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি,মায়ের বিবাহবর্হিভূত সম্পর্কের বিপক্ষে ছিলেন ছেলে। নিজের পথের কাঁটা সরাতেই ছেলেকে খুন করলেন মা ভানুমতী বলে অভিযোগ। এদিনের ঘটনায় মা ভানুমতীকে আটক করেছে পুলিশ। এছাড়াও এই ঘটনায় ভানুমতির সঙ্গী জড়িত কিনা তা তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *