‘মানুষ বড় কাঁদছে’, মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে প্রাণবায়ু জোগাচ্ছে হায়দরাবাদের সংস্থা


ফাইল চিত্র

হায়দরাবাদ: দেশের সার্বিক করোনা (COVID) পরিস্থিতি অত্যন্ত শোচনীয়। করোনার করাল থাবা থেকে বাদ পড়েনি দক্ষিণ-পূর্বের রাজ্যগুলিও। করোনা সংক্রমণ বিপুল গতিতে ছড়াচ্ছে অন্ধ্র প্রদেশ, তেলঙ্গনাতেও। স্বাভাবিকভাবেই এই পরিস্থিতিতে ভেঙে পড়েছে স্বাস্থ্য পরিকাঠামো। করোনা ঠেকাতে প্রয়োজন বিপুল অক্সিজেনের। কিন্তু সারা দেশে প্রাণবায়ুর হাহাকার। এহেন পরিস্থিতিতেই প্রাণবায়ু জোগানোর কাজ করছে হায়দরাবাদের সংস্থা মেঘা ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড ইনফ্রাস্ট্রাকচার লিমিটেড (MEIL)।

ইতিমধ্যেই তেলঙ্গানা সরকারকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ৫০০-৬০০ অক্সিজেন সিলিন্ডার দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে মিল। এছাড়াও রোজ প্রতি সিলিন্ডারে ৭,০০০ লিটার অর্থাৎ মোট ৩৫ লক্ষ লিটার অক্সিজেন সরবরাহের পরিকল্পনা নিয়েছে এই সংস্থা। ইতিমধ্যেই নিজাম ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্স, সরোজিনি দেবী চক্ষু হাসপাতাল, অ্যাপলো ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্স, হায়দরাবাদ কেয়ার হাই-টেক হাসপাতালকে অক্সিজেন রিফিল পরিষেবা দেওয়ার কথা জানিয়েছে মিল।

দেশব্যাপী এই চরম দুর্দশার মধ্যে ডিফেন্স রিসার্চ ডেভেলপমেন্ট অরগানাইজেশনের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ৩০-৪০টি অক্সিজেন জেনারেশন প্ল্যান্ট তৈরির পরিকল্পনা নিয়েছে মেঘা ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড ইনফ্রাস্ট্রাকচার লিমিটেড। যার প্রত্যেক প্ল্যান্ট থেকে প্রতি মিনিটে ১৫০-১০০০ লিটার অক্সিজেন তৈরি করা সম্ভব হবে। মিলের এই পরিকল্পনায় কাজ করার জন্য অভিজ্ঞ বিজ্ঞানী ডঃ রাঘবেন্দ্র রাওকে দায়িত্ব দিয়েছেন খোদ ডিআরডিও-র ডিরেক্টর।

এখনই প্রতিদিন ৩০ মেট্রিক-টন ক্রায়োজেনিক অক্সিজেন তৈরি করছে মিল। যা চিকিৎসার অক্সিজেনে রূপান্তরিত হবে। সূত্র মারফত এ-ও জানা গিয়েছে, সরকারের প্রয়োজন পড়লে স্পেন থেকে ১০-১৫ ক্রায়োজেনিক অক্সিজেন ট্যাঙ্ক আমদানিও করার জন্য প্রস্তুত হায়দরাবাদের এই সংস্থা। দেশের করোনা পরিস্থিতি সঙ্গীন। এই পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছেন প্রত্যেকে। সঙ্কটময় পরিস্থিতিতে মিলের এই প্রাণদায়ী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে ওয়াকিবহাল মহল।

আরও পড়ুন: শিশুদের ওপর কোভ্যাক্সিনের চূড়ান্ত ট্রায়ালে ছাড়পত্র বিশেষজ্ঞ দলের



Source hyperlink

Spread the love

Leave a Reply

%d bloggers like this: