সহানুভূতি পাওয়ার জন্যই মন্তব্য করছেন রাজীব, সরব ডোমজুড়ের বিধায়ক

সুরশ্রী রায় চৌধুরীঃ মঙ্গলবার সোশ্যাল মিডিয়ায় বিস্ফোরক পোস্ট করেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি লেখেন, ‘সমালোচনা তো অনেক হল… মানুষের বিপুল জমসমর্থন নিয়ে আসা নির্বাচিত সরকারের সমালোচনা ও মুখ্যমন্ত্রীর বিরোধিতা করতে গিয়ে কথায় কথায় দিল্লি, আর ৩৫৬ ধারার জুজু দেখালে বাংলার মানুষ ভালোভাবে নেবে না। আমাদের সকলের উচিত রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে, কোভিড ও ইয়াস এই দুই দুর্যোগে বিপর্যস্ত বাংলার মানুষের পাশে থাকা।’ এরপরই রাজীবের বিজেপি ত্যাগ নিয়ে জল্পনা শুরু হয়।

আরো পড়ুন ‘করোনা অনেকটা রামদেবের মত’ – তুলনা করে বিতর্কে জড়ালেন রাখি সাওয়ান্ত!

সোশ্যাল মিডিয়ায় রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্যকে ঘিরে সরব হন ডোমজুড়ের তৃণমূল বিধায়ক কল্যাণ ঘোষ। সহানুভূতি পাওয়ার জন্যই সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন রকমের মন্তব্য করছেন রাজীব। বুধবার হুগলির শ্রীরামপুরে এক অনুষ্ঠানে ডোমজুরের বিধায়ক বলেন, মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন সেচ ও বন দফতরের দুর্নীতি নিয়ে তদন্ত হবে। তাই সহানুভূতি কুড়োনোর চেষ্টা করছেন রাজীব। ভোটের সময় দলনেত্রীর ছবি নিয়ে কাঁদলেন। আর পরদিনই নরেন্দ্র মোদী(Narendra Modi), অমিত শাহর পায়ে গিয়ে পড়লেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে উনি যেসব কথা বলেছেন তাতে দলের কর্মীরা প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ। তাই তারা চান না রাজীব দলে ফিরুন।

আরো পড়ুন Kangna Ranaut: সোশ্যাল মিডিয়ায় পুরুষ খুঁজছেন কঙ্গনা ! এবার পর্ব প্রেমের !

উল্লেখ্য, আজ ডোমজুরের সলপে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Rajib Banerjee) বিরুদ্ধে পোস্টার দিয়ে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তৃণমূল সমর্থকরা। পোস্টারে লেখা, ‘বাংলায় ও ডোমজুর এলাকায় মীরজাফর ও গদ্দারের কোনও জায়গা নেই।‘ একই সঙ্গে তৃণমূল নেত্রীর কাছে কর্মীদের আবেদন, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে যেন কোনও ভাবেই দলে ফেরানো না হয়। তাঁদের অভিযোগ, মন্ত্রিত্ব পেয়ে কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। শেষে দলের সঙ্গে ‘গদ্দারি’ করেছেন তিনি।

আরো পড়ুন নিখিলের সঙ্গে কোন বৈবাহিক সম্পর্ক ছিল না, মুখ খুললেন নুসরত

Spread the love

Leave a Reply

%d bloggers like this: